1. admin@notunkurisylhet.com : notun :
শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ০১:২৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বাহুবলে বিজয়ী হবার পরই কৃতজ্ঞতা জানাতে লোকালয়ে ঘুরছেন চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান বাহুবলে জমি সংক্রান্ত বিরোধ দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫ তীর বৃদ্ধ গুরুত্বর অবস্থায় দু’জনকে সিলেট প্রেরণ বাহুবলে ফ্রিপ প্রকল্পের কৃষক গ্রুপের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারের মৃত্যু হবিগঞ্জে ছাড়তে হচ্ছে না ৩ উপজেলা চেয়ারম্যান এর চেয়ার বাহুবলে জামানত হারিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান খলিলসহ ৯ প্রার্থী বাহুবলে জাল ভোট দেওয়ায় একজনের ১ বছরের কারাদণ্ড, আটক ২ দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনে কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের প্রতি পুলিশ সুপারের হুশিয়ারী বানিয়াচংয়ে সংঘর্ষে নিহত ৩! আহত শতাধিক বাহুবলে ভাইয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে বোনের মুত্যু

নবীগঞ্জ শহর ফুটপাত দখল করে জমজমাট ব্যবসা” যেথায় সেথায় গাড়ী স্ট্যান্ড! যানজট দুর্ভোগ

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ২২ অক্টোবর, ২০২২
  • ৮২ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ পৌর শহরের প্রাণকেন্দ্রে যেথায় সেথায় গাড়ী স্ট্যান্ড ও ফুটপাত দখল করে ভাসমান দোকান বসিয়ে ব্যবসা পরিচালনা করায় জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে।

 

পৌর শহরের সড়কগুলোতে প্রতিদিন বসে এ ধরনের ভ্রাম্যমাণ বাজার ও যেথায় সেথায় গাড়ী স্ট্যান্ড ।যার ফলে  সড়ক গুলোতে  চলতে পৌরবাসীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

 

বিশেষ করে শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকার ফুটপাত  এখন হকারদের দখলে।

 

পথচারীদের অনেকক্ষেত্রে বাধ্য হয়ে হাঁটতে হয় মূল সড়ক দিয়ে। মাঝে মাঝে প্রশাসনের অভিযানে এসব জঞ্জাল  উচ্ছেদ হলেও  কিছু দিন  যেতে না যেতেই ফুটপাত আবারও দখলে চলে যায়। সরেজমিনে দেখা যায়, জে.কে স্কুল রোড, ওসমানী রোড, হাসপাতাল রোড, শেরপুর রোড,  আব্দুল মতিন চৌধুরী স্কয়ার (গাজীর টেক) সামনের সড়কের দুই পাশের ফুটপাতে ভাসমান দোকানপাট গড়ে উঠেছে।

 

অপরদিকে একশ্রেণির অসাধু  টমটম ও অটোরিকশার চালকেরা সড়কের যেথায় সেথায় লাইন সারি সারি বেধে চরম দুর্ভোগে টেলে দিচ্ছে পৌর নাগরিকদের,

এতে সড়কে প্রতিনিয়ত যানজট লেগেই থাকে। ফুটপাতের বাজারে থাকছে ফলমূল, চটপটি, হালিম, চানাচুর, শাকসবজি, কাপড়, জুতাসহ বিভিন্ন পণ্যের দোকান। এমনিতেই সব সময় ব্যস্ত থাকে এই সড়ক, এরমধ্যে দোকান পাটের কারণে আরো বেশী চাপ পড়ে।

 

এতে স্থায়ী রূপ লাভ করছে যানজট। ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন পৌর শহরবাসী। এছাড়া ও ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা পৌর জনগণ হতে দ্বিগুণ হয়েগেছে, যানজট চরমে হওয়ায় দুর্ভোগে পথচারী সহ বিআইপিরা তবুও নিষচুপ উপজেলা প্রশাসন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যবসায়ী জানান, তাদের বসার স্থায়ী কোন জায়গা নেই।

 

নিরূপায় হয়েই তারা ফুটপাতে বসেন। সংসার চালাতে বিকল্প কোনো উপায়ও তাদের নেই। পথচারীরা জানান, এ পথ দিয়ে যখন হাঁটি, মনে হয় ব্যস্ত কোনো সড়ক দিয়ে যাচ্ছি। আমাদের সমস্যা দেখার কি কেউ নেই ? রাত কি, আর দিন কি, সড়কে ভিড় জমে থাকে।

 

আমরা সবাই বলি নবীগঞ্জ শান্তির শহর কিন্তু এখন তো ট্রাফিক পয়েন্টসহ শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে জ্যাম লেগে থাকে। শান্তি থাকছে না, অস্থিরতা শুরু হয়েছে।

 

ফুটপাত হচ্ছে জনগণের চলাচল করার জন্য। কিন্তু ফুটপাতের সুবিধা পাচ্ছেন না পথচারীরা। এটা আমাদের শহরের জন্য ক্ষতিকর। এখন থেকে সুষ্ঠ পরিকল্পনা করে শহরকে সুন্দর পরিচ্ছন্ন রাখা জরুরী। ফুটপাত দখলমুক্ত করার পর সেটা যেন আবার দখল না হয় সে জন্য নজরদারি রাখতে হবে।

 

পথচারী সফর আলী বলেন, সড়কে ভাসমান দোকান থাকার কারণে ঠিক মতো হাঁটা যায় না। দিনের বেশিরভাগ সময়ই সড়কে মানুষের জ্যাম তৈরি হয়। সন্ধ্যায় তো আরো বেশী খারাপ অবস্থা হয়।

 

স্বাভাবিক চলাফেরায় বিঘ্ন ঘটে। যানজটে আটকা পড়ে, রোগী বহনকারী এ্যাম্বুলেন্স সহ শত শত যানবাহন৷ এছাড়াও এসব দোকানপাঠ  ও অবৈধ দখলদারদের  কারণে ঘটছে প্রতিনিয়ত ছোট-বড় অনেক দুর্ঘটনা।সচেতন মহলের প্রশ্ন এসব দেখার কি কেউ নেই?

 

এটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2024
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It Hosting