1. admin@notunkurisylhet.com : notun :
রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ০৬:৫৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বাহুবলে করাঙ্গী নদীর বাঁধ ভেঙে এলাকা প্লাবিত।। পানিবন্দি বাসিন্দারা বাহুবলে বিজয়ী হবার পরই কৃতজ্ঞতা জানাতে লোকালয়ে ঘুরছেন চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান বাহুবলে জমি সংক্রান্ত বিরোধ দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫ তীর বৃদ্ধ গুরুত্বর অবস্থায় দু’জনকে সিলেট প্রেরণ বাহুবলে ফ্রিপ প্রকল্পের কৃষক গ্রুপের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারের মৃত্যু হবিগঞ্জে ছাড়তে হচ্ছে না ৩ উপজেলা চেয়ারম্যান এর চেয়ার বাহুবলে জামানত হারিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান খলিলসহ ৯ প্রার্থী বাহুবলে জাল ভোট দেওয়ায় একজনের ১ বছরের কারাদণ্ড, আটক ২ দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনে কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের প্রতি পুলিশ সুপারের হুশিয়ারী বানিয়াচংয়ে সংঘর্ষে নিহত ৩! আহত শতাধিক

বন্ধুর সাথে ঘুরতে গিয়ে বাড়ি ফিরলো না ফয়েজ

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১১ অক্টোবর, ২০২২
  • ১৭০ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের জিয়াপুর গ্রামের মৃত আরজু মিয়ার ছেলে মোঃ ফয়েজ আহমদ (২৩) ও বাদে রায়ঘর গ্রামের আতা মিয়ার ছেলে,  জাকির হোসেন (২৫) নামের দু’বন্ধু একসাথে গত ৩০ সেপ্টেম্বর শুক্রবার, রাত ৮টার দিকে বাড়ী থেকে মার্কুলি বাজারে  যাওয়ার উদ্দেশ্যে বের  হন। রাত ১২টার দিকে জাকির তার বন্ধু ফয়েজের বড় ভাই কয়েছ আলী ইমনকে নিখোঁজের সংবাদ জানায়।

 

পরদিন শনিবার সকালে বলে পুলিশের ধাওয়া খেয়ে, ফয়েজ কোন দিকে পালিয়ে গেছে তাকে খোজে পাওয়া যাচ্ছেনা। তোমরা মার্কুলি, রতনপুর, এসো আমি হাওয়রে আছি।

 

তাৎক্ষণিক জাকিরের দেয়া তথ্যমতে সেখানে  গিয়ে ফয়েজের জুতা জোড়া ও মোটরসাইকেল পাওয়া যায় এক বাড়ীতে, কিন্তু ফয়েজকে পাওয়া যায়নি।

 

এরপর থেকেই জাকির হোসেন তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি বন্ধ করে আত্মগোপনে চলে যায়। এদিকে পুলিশের দেয়া তথ্য সূত্র জানায়, জাকির মার্কুলি গেলেও ফয়েজ কিন্তু  যায়নি, জাকিরের ভিন্ন ভিন্ন তথ্য ও লুকোচুরি খেলায় ফয়েজের পরিবার সন্দেহ করছেন টাকা অথবা অদৃশ্য  কারণে ফয়েজকে  জাকির ও তার ভাগিনার সহযোগিতায় গুম করেছে দুষ্কৃতিকারীরা৷

 

এদিকে নবীগঞ্জ থানায় তাদের দু’ই পরিবার ই  নিখোঁজের জন্য  সাধারণ ডায়েরীভুক্ত  করেছেন।

 

অন্য দিকে ফয়েজের ভাই কয়েছ আলী ইমন বানিয়াচং থানায় জাকির হোসেন ও তার ভাগিনা সহ কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে আরো একটি অভিযোগ দায়ের  করেছেন।

 

এঘটনায় নিখোঁজের ১৩দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ প্রশাসন তৎপর না হওয়ার কারণে আসামী এবং নিখোঁজের সন্ধান মিলছেনা বলে অভিযোগ করেন নিখোঁজের বড় ভাই কয়েছ আলী ইমন।

 

তিনি আরো বলেন, তার ভাই নিখোঁজের পরথেকে তাদের পরিবার/পরিজন  তার মা’সহ সকলেই আহার নিদ্রা নেই,সবাই নিখোঁজ ফয়েজের জন্য অজানা আতংকে দিনপাত কাটাচ্ছেন ৷ তাই নিখোঁজ ফয়েজের বন্ধু জাকিরকে গ্রেফতার করলেই ঘটনার রহস্য উদঘাটিত হবে এবং ফয়েজের সন্ধান পাওয়া যাবে বলে দাবী করেন নিখোঁজের পরিবারের লোকজন৷

 

এটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2024
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It Hosting