1. admin@notunkurisylhet.com : notun :
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ০৯:২৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বাহুবলে বিজয়ী হবার পরই কৃতজ্ঞতা জানাতে লোকালয়ে ঘুরছেন চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান বাহুবলে জমি সংক্রান্ত বিরোধ দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫ তীর বৃদ্ধ গুরুত্বর অবস্থায় দু’জনকে সিলেট প্রেরণ বাহুবলে ফ্রিপ প্রকল্পের কৃষক গ্রুপের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারের মৃত্যু হবিগঞ্জে ছাড়তে হচ্ছে না ৩ উপজেলা চেয়ারম্যান এর চেয়ার বাহুবলে জামানত হারিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান খলিলসহ ৯ প্রার্থী বাহুবলে জাল ভোট দেওয়ায় একজনের ১ বছরের কারাদণ্ড, আটক ২ দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনে কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের প্রতি পুলিশ সুপারের হুশিয়ারী বানিয়াচংয়ে সংঘর্ষে নিহত ৩! আহত শতাধিক বাহুবলে ভাইয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে বোনের মুত্যু

মৌলভীবাজারে প্রেমের টানে দুই সন্তানের জননী মুসলিম ছেলের সাথে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৩০ জুলাই, ২০২২
  • ১২২ বার পঠিত

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় পরকীয়া প্রেমে আসক্ত হয়ে লক্ষী রাণী রায় নামে সনাতন ধর্মের এক গৃহবধূ স্বামী সন্তান রেখে আব্দুর রজাক নামে এক মুসলিম প্রেমিকের সাথে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

 

২৮ জুলাই  বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার সদর ইউনিয়নের দাশের মহল এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। এতে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে।

 

এ ঘটনায় ওই গৃহবধূর স্বামী অভি চন্দ্র গুণ বাদী হয়ে কুলাউড়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী ৮ বছর আগে উপজেলার সদর ইউনিয়নের দাশের মহল এলাকার অভি চন্দ্রের সাথে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর থানার লক্ষী রাণীর বিয়ে হয়।

 

সংসার জীবনে তাদের দুই সন্তানও রয়েছে। প্রতিবেশী হওয়ার সুবাদে অভির বাড়িতে আসা যাওয়া করতেন একই এলাকার আব্দুর রজাক।

 

একপর্যায়ে অভির স্ত্রী লক্ষী রাণীর সাথে রজাকের পরকীয়া প্রেম তৈরি হয়। হঠাৎ একদিন লক্ষী রাণীর স্বামী বিষয়টি জেনে গেলে এলাকার মুরব্বিদের অবহিত করে বিচার সালিশের মাধ্যমে ঘটনাটির মীমাংসা হয়।

 

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে যেকোনো সময় অভির স্ত্রী লক্ষীকে তুলে নিয়ে যাওয়ার জন্য এলাকায় বিভিন্ন প্রচার চালান রজাক। বৃহস্পতিবার রাতে অভি বাড়িতে না থাকায় স্বর্ণালংকারসহ লক্ষীকে নিয়ে পালিয়ে যায় রজাক।

 

এ ব্যাপারে কুলাউড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম শুক্রবার রাতে বলেন, থানায় এরকম একটি অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনার সত্যতা যাচাই করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

 

এটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2024
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It Hosting