1. admin@notunkurisylhet.com : notun :
রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ০৮:২৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বাহুবলে করাঙ্গী নদীর বাঁধ ভেঙে এলাকা প্লাবিত।। পানিবন্দি বাসিন্দারা বাহুবলে বিজয়ী হবার পরই কৃতজ্ঞতা জানাতে লোকালয়ে ঘুরছেন চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান বাহুবলে জমি সংক্রান্ত বিরোধ দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫ তীর বৃদ্ধ গুরুত্বর অবস্থায় দু’জনকে সিলেট প্রেরণ বাহুবলে ফ্রিপ প্রকল্পের কৃষক গ্রুপের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারের মৃত্যু হবিগঞ্জে ছাড়তে হচ্ছে না ৩ উপজেলা চেয়ারম্যান এর চেয়ার বাহুবলে জামানত হারিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান খলিলসহ ৯ প্রার্থী বাহুবলে জাল ভোট দেওয়ায় একজনের ১ বছরের কারাদণ্ড, আটক ২ দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনে কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের প্রতি পুলিশ সুপারের হুশিয়ারী বানিয়াচংয়ে সংঘর্ষে নিহত ৩! আহত শতাধিক

অবহেলিত বাহুবল দেখার যেনো কেউ নেই! জনপ্রতিনিধিরা মুখে আশ্বস্ত করলেও বাস্তবে নেই কর্যক্রম

জুবায়ের আহমেদ বাহুবল হবিগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১
  • ৩৬৫ বার পঠিত

জুবায়ের আহমেদ ,বাহুবল(হবিগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের অবহেলিত বাহুবল বাজার দেখার যেনো কেউ নেই, জনপ্রতিনিধিরা মুখে বিভিন্ন উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি আর আশ্বস্ত করলেও বাস্তবে কিছুই পায়নি বাহুবলবাসী।

দীর্ঘদিন যাবত সরকারের উন্নয়নের ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত ঐতিহ্যবাহী বাহুবলের করাঙ্গী নদীর ব্রিজ ও বাহুবল বাজারের রাস্তা গুলো।

সামান্য বৃষ্টি হলেই দূরাবস্থায় পরিনত হয় বাহুবল বাজারের মেইন সড়কটি।এই বাজারে সওদা করতে আসেন উত্তর,পশ্চিম ও পূর্বাঞ্চলের লক্ষ লক্ষ মানুষ, বাহুবল উপজেলায় কোথাও ভালো কোন বাজার না থাকায় বাহুবল বাজারকেই প্রাধান্য দিয়ে থাকেন।

 

উপজেলার বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষ যে কোন প্রয়োজনে বাহুবল বাজারেই আসতে হয় তাদের, কিন্তু উপজেলার বাগান বাড়ি থেকে বাহুবল সদর ও হামিদনগর হয়ে চালিতাতলা পেট্রোল পাম্প পর্যন্ত রাস্তায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।

যার ফলে এই ঐতিহ্যবাহী বাহুবল বাজারে সিএনজি অটোরিকশা ও দূরপাল্লার বাস চলাচল প্রায় বন্ধ হয়ে আসছে,

 

এলাকাবাসী ও স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে প্রতিদিন, এরইমধ্যে প্রাচীন কালের তৈরি করাঙ্গী নদীর ব্রিজটি রয়েছে অতি ঝুঁকিপূর্ণ, যে কোন সময় ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ে মারাত্মক ক্ষয়ক্ষতির আশংকা বৃদ্ধবান রয়েছে।

 

বাহুবল বাজারের রাস্তার দু’পাশে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় সামান্য বৃষ্টি হলেই পানি জমাট হয়ে গর্তের সৃষ্টি হচ্ছে, বাজারে সওদা করতে আসা নারী শিশু ও দর্শনার্থীদের পড়নের জামা কাপড় রাস্তায় জমাট থাকা কাঁদা পানি পড়ে নষ্ট হয়ে যাচ্ছে,

 

যে কারণে এই ঐতিহ্যবাহী বাহুবল বাজারে আসতে চায়না মানুষ,এই পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বাজারে ক্রেতা সাধারণ আসতে না পারলে ব্যবসায়ীদের লাভের চেয়ে ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি,

 

কিন্তু বাহুবল সদরে রয়েছে উপজেলা পরিষদ,উপজেলা প্রশাসনের কার্যালয়,রয়েছে বাহুবল মডেল থানা ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, প্রতিদিন বাহুবল সদরে বিভিন্ন কাজে আসেন অসংখ্য মানুষ,কিন্তু জীবনের ঝুঁকি নিয়েই জরুরী কাজ সারতে হয় তাদেরকে,

বাহুবল সদরের রয়েছে ইসলামাবাদ আবাসিক এলাকায়, এই এলাকায় হালকা বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে যেতে দেখা যায় মেইন রাস্তা টি, ফলে

বসবাসরত সকলকে পরতে হয় নানান সমালোচনা মুখে, এমনই এক বক্তব্য দেন ইসলামাবাদের অনেক স্কুল কলেজ পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রীরা তার জানান যে আমাদের বাহুবলের কর্ণধার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সৈয়দ খলিলুর রহমান এই ইসলামাবাদের অধীনস্থ একটি ভাড়া বাসায় থাকেন তিনি গাড়ি নিয়ে আসেন এবং গাড়ি নিয়েই চলে যান, উনার আমাদের এই সমস্যা দেখার মত সময় নেই উনার কাছে।

 

সচেতন মহলের দাবী,নির্বাচন আসলে বাহুবলবাসীকে কতনা প্রতিশ্রুতি দেন জনপ্রতিনিধিরা, কিন্তু আজ পর্যন্ত সরকারের উন্নয়নের ছোঁয়া থেকে বঞ্চিত ঐতিহ্যবাহী অবহেলিত বা

এটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2024
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It Hosting