1. admin@notunkurisylhet.com : notun :
মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০৫:১৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বাহুবলে বিজয়ী হবার পরই কৃতজ্ঞতা জানাতে লোকালয়ে ঘুরছেন চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান বাহুবলে জমি সংক্রান্ত বিরোধ দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫ তীর বৃদ্ধ গুরুত্বর অবস্থায় দু’জনকে সিলেট প্রেরণ বাহুবলে ফ্রিপ প্রকল্পের কৃষক গ্রুপের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারের মৃত্যু হবিগঞ্জে ছাড়তে হচ্ছে না ৩ উপজেলা চেয়ারম্যান এর চেয়ার বাহুবলে জামানত হারিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান খলিলসহ ৯ প্রার্থী বাহুবলে জাল ভোট দেওয়ায় একজনের ১ বছরের কারাদণ্ড, আটক ২ দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনে কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের প্রতি পুলিশ সুপারের হুশিয়ারী বানিয়াচংয়ে সংঘর্ষে নিহত ৩! আহত শতাধিক বাহুবলে ভাইয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে বোনের মুত্যু

নবীগঞ্জে হাফিজিয়া মাদ্রাসার টাকা আত্মসাৎ ” ইউএনও বরাবর লিখিত অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১২ মার্চ, ২০২৩
  • ২৩৯ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার: হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের দৌলতপুর ও খোদ করিমপুর হাফিজিয়া মাদ্রাসার ৪১ হাজার টাকা আত্মসাৎ এর গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে অত্র শিক্ষা  প্রতিষ্ঠানের সাবেক ক্যাশিয়ার আজিজুর রহমানের উপর৷ এঘটনায় প্রতিকার চেয়ে বর্তমান কমিটি সহ এলাকাবাসীর গণস্বাক্ষর কৃত একটি লিখিত অভিযোগ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে দায়ের করা হয়েছে৷

 

 

অভিযোগে উল্লেখ ও সূত্রে জানাযায় : উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের দৌলতপুর ও খোদ করিমপুর হাফিজিয়া মাদ্রাসায় বিগত ম্যানেজিং কমিটিতে ক্যাশিয়ার পদে থাকাকালীন সময়ে দৌলতপুর গ্রামের মৃত হাজী নুরুল ইসলামের পুত্র আজিজুর রহমান বর্তমান কমিটিকে কোনো প্রকার হিসাব না সমজিয়ে না দিয়ে উক্ত ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪১ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন৷ এনিয়ে উক্ত মাদ্রাসার কমিটির সভাপতি হাজী আমীর আলীর সভাপতিত্বে একাধিক বার মিটিং হয়৷

 

 

তবুও কোনো মিটিংয়ে উপস্থিত  তিনি উপন্থিত হননি৷ এমনকি বারংবার তাগিদ দিলেও  মাদ্রাসার পাওনা ৪১ হাজার টাকা ফেরৎ দেননি আজিজুর৷ উল্টো তিনি  কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে অসৌজন্যমূলক আচরণ ও নানা ধরনের হুমকি ধামকি দেন৷

 

 

এই ঘটনায় ম্যানেজিং কমিটি সহ এলাকায় সচেতন মহলের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সহ নানা ধরনের আলোচনা সমালোচনা বিরাজ করছে৷ অবশেষে নিরুপায় হয়ে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হাজী আমীর আলী ও কমিটির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ সহ এলাকার প্রায় অর্ধশতাধিক লোকজনের গণস্বাক্ষরিত একটি লিখিত অভিযোগ গত ২ মার্চ নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে দাখিল করেন৷

 

 

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইমরান শাহরিয়ারের সাথে  যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও  তিনি  ফোন রিসিভ করেননি৷

 

এটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2024
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It Hosting