1. admin@notunkurisylhet.com : notun :
বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ১০:৫৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বাহুবলে বিজয়ী হবার পরই কৃতজ্ঞতা জানাতে লোকালয়ে ঘুরছেন চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান বাহুবলে জমি সংক্রান্ত বিরোধ দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৫ তীর বৃদ্ধ গুরুত্বর অবস্থায় দু’জনকে সিলেট প্রেরণ বাহুবলে ফ্রিপ প্রকল্পের কৃষক গ্রুপের প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত সহকারী প্রিজাইডিং অফিসারের মৃত্যু হবিগঞ্জে ছাড়তে হচ্ছে না ৩ উপজেলা চেয়ারম্যান এর চেয়ার বাহুবলে জামানত হারিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান খলিলসহ ৯ প্রার্থী বাহুবলে জাল ভোট দেওয়ায় একজনের ১ বছরের কারাদণ্ড, আটক ২ দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনে কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের প্রতি পুলিশ সুপারের হুশিয়ারী বানিয়াচংয়ে সংঘর্ষে নিহত ৩! আহত শতাধিক বাহুবলে ভাইয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে বোনের মুত্যু

তাহিরপুরে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২ মার্চ, ২০২৩
  • ১৩৬ বার পঠিত

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: সুনামগঞ্জ তাহিরপুর উপজেলার শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল ওজনে কম দেয়ার অভিযোগ ওঠেছে। খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলার কর্তৃক ১৫ টাকা দরে ৩০ কেজি চাল ৪৫০ টাকায় বিক্রি করা হয় কার্ডধারীদের নিকট । ডিলার কার্ডধারীদের ৩০ কেজি চাল ওজন করে না দিয়ে বালতি দিয়ে চাল বিক্রি করছেন ।

 

 

চাল গ্রহণ করে কার্ডধারীরা পূনরায় মেপে দেখেন তাদের ২৫ কেজি করে চাল দেয়া হচ্ছে। শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের মুজরাই গ্রামের বরুন বর্মণ জানান, বুধবার ডিলার এরশাদুল তালুকদারের নিকট থেকে  খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির চাল মেপে দেখেন ২৫ কেজি হয়েছে।

 

 

মইয়্যাজুরি গ্রামের আসাদ নূর জানান,অন্যবার ডিলার তাদের ৩০ কেজি প্যাকেটের চাল ৪৫০ টাকায় তাদের দিতো। এবার বড় বস্তায় চাল থাকার কারণে ডিলার বস্তা খুলে তাদের বালতি দিয়ে চাল দিয়েছে। মেপে দেখেন চাল ২৬ কেজি হয়েছে।

 

 

মন্দিয়াতা গ্রামের শফিকুল ইসলাম বলেন,বড় বস্তা থেকে চাল নিলেই ওজনে কম হয়। ছোট বস্তায় চাল নিলে কোন সমস্যা হয় না। অর্থাৎ ছোট বস্তায় ৩০ কেজির প্যাকেট থাকে। বড় বস্তা থেকে নিলে বস্তা খুলে চাল নিতে হয়। এজন্যই ওজনে চাল কম হয়। চাল কম দেয়ার বিষয়টি নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই জানিয়েছেন।

 

 

শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলার এরশাদুল তালুকদার বলেন,চাল বিতরনের সময় তিনি বাহিরে ছিলেন,বিষয়টি খেঁাজ নিয়ে দেখছেন বলে তিনি জানান।

 

 

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক বিএম মুসফিকুর রহমান বলেন,চাল কম দেয়ার বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে। তদন্তে প্রমাণ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

এটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2024
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: FT It Hosting